রাজ্য বার্তা

বহরমপুরে ছাত্রী খু*নে প্রাক্তন প্রেমিকের মৃ*ত্যুদণ্ড

নিউজ ডেস্ক: সুতপা খু*নে সুশান্ত চৌধুরীর মৃ*ত্যুদণ্ড দিল আদালত। মেসের সামনেই নৃশংসভাবে কুপিয়ে ছাত্রীকে খু*ন করা হয়।এই মামলায় মঙ্গলবার বহরমপুর আদালতে দোষী সাব্যস্ত হন সুশান্ত চৌধুরী।

জানা গিয়েছে, ভিডিও ফুটেজের সূত্রে দোষী সাব্যস্ত হয় মৃতার প্রাক্তন প্রেমিক। বিরলতম অপরাধ, মৃত্যুদণ্ড দিয়ে জানাল ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টদোষী সাব্যস্ত সুশান্ত চৌধুরী।

গত বছর অর্থাত্‍ ২০২২-এর ২ মে, মেসের সামনেই কলেজ ছাত্রী সুতপা চৌধুরী (Sutapa Chowdhury Murder) নামে ওই ছাত্রীকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে খু*ন করা হয়। অভিযোগ ওঠে তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক সুশান্ত চৌধুরীর বিরুদ্ধে। পুলিশের অভিযোগ, রীতিমতো ছক কষে সুতপাকে খু*ন করা হয়েছিল। সেই মামলাতেই প্রথমে দোষী সাব্যস্ত হয় সুশান্ত এবং তারপর এদিন তাঁকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত।

ঘটনার দিন রাতেই গ্রেফতার করা হয় সুশান্তকে। ঘটনাটি ঘটেছিল বহরমপুরের গোরাবাজারের একটি মেসের সামনে। সেখানেই থাকতেন বহরমপুর গার্লস কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী সুতপা চৌধুরী।

পুলিশ সূত্রের খবর, মালদার ইংরেজবাজারের বাসিন্দা সুতপার সঙ্গে পুখুরিয়ার বাসিন্দা সুশান্ত চৌধুরীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। ২ মে ঘটনার দিন, সন্ধে নাগাদ শহিদ সূর্য সেন রোড দিয়ে মেসে ফিরছিলেন বহরমপুর গার্লস কলেজের প্রাণীবিদ্যার তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী সুতপা। সেই সময়েই ঘটনাটি ঘটান তাঁর প্রেমিক।

এলাকার সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে, তাঁকে অনুসরণ করছে সুশান্ত! তার পর, সুযোগ বুঝে মেসের দরজার সামনেই তরুণীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে সে। এরপর অভিযুক্তকে জেরায় পুলিশ জানতে পেরেছিল, সুতপাকে খু*ন করে পালানোর পথ আগেই তৈরি করে রেখেছিল সুশান্ত। এলাকার একটি বাড়ির পাঁচিলে লাগানো পেরেক বাঁকিয়ে রেখেছিল সে। খুনের পর ওই জায়গা দিয়েই পাঁচিল টপকে পালায় সুশান্ত।

এরপরেই কার্যত তোলপাড় ফেলে দেয় ছাত্রীখু*নের হাড় হিম করা হ*ত্যাকাণ্ড। বছরঘুরে দোষীর মৃ*ত্যুদণ্ড দিল আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *