রাজ্য বার্তা

দক্ষিণবঙ্গে চোখ রাঙাচ্ছে অতি গভীর নিম্নচাপ!

নিউজ ডেস্ক: উৎসবের মরশুম শেষের পথে। দুর্গা পুজো দিয়ে শুরু হয় উৎসবের সূচনা একে একে কালীপুজো, ভাইফোঁটা আর এখন রয়েছে বাকি শুধুই জগদ্ধাত্রী পুজো। আর এরই মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের ওপর চোখ রাঙাচ্ছে গভীর এক নিম্নচাপ।

আবহাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে, গত কয়েকদিন ধরে বঙ্গোপসাগরে যে নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার কথা বলা হচ্ছিল তা ইতিমধ্যেই শক্তি সঞ্চয় করে অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে চলেছে।এমনকি এই সিস্টেম ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে এমন আশঙ্কাও করা হচ্ছে।

যদি এই সিস্টেম ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয় তাহলে এর নাম হবে মিধিলি। বর্তমানে গভীর এই নিম্নচাপ অবস্থান করছে বঙ্গোপসাগরে। বঙ্গোপসাগরে থাকা এই সিস্টেম বৃহস্পতিবার অন্ধ্র উপকূলে শক্তি সঞ্চয় করে পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপর অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। পরে তা উত্তর ও উত্তর-পূর্ব দিকে বাঁক খেয়ে শুক্রবার ওড়িশা লাগোয়া উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের কাছে পৌঁছাবে এই নিম্নচাপ। ইতিমধ্যেই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

হাওয়া অফিসের শেষ আপডেট, এই সিস্টেম এখন দিঘা থেকে ৬৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া থেকে ৭৮০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে দূরে অবস্থান করছে। বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া এই সিস্টেম আগামী ১৮ নভেম্বর অর্থাত্‍ শনিবার বাংলাদেশের মঙ্গলা এবং খেপুপাড়ার মাঝখানে থাকা ভূভাগে প্রবেশ করবে। এই সিস্টেম যদি অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয় তাহলে বাতাসের তীব্রতা বাড়বে এবং বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ৪০ থেকে ৫৫ কিলোমিটার গতিবেগে ঝড় বইতে পারে।

আবহাওয়ার এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার ৭০ থেকে ১১০ মিলিমিটার অর্থাত্‍ ভারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণায়। এই দুই জেলা ছাড়াও হালকা বৃষ্টিপাতের সঙ্গে বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, কলকাতা, হাওড়া এবং হুগলিতে। শুক্রবার বৃষ্টিপাতের পরিমাণ আরও বাড়বে। অন্যদিকে শনিবার বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমবে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী এই ১১ জেলা ছাড়া বাকি জেলা শুষ্ক থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *