আন্তর্জতিক বার্তা

পটুয়াখালীর লাউকাঠী বাজারে আগুন, তিন দোকানদার সর্বশান্ত

মোঃ আবদুল আলিম, নিজস্ব সংবাদদাতা: পটুয়াখালী সদর থানার লাউকাঠী বাজারে আগুন লেগে তিনটি দোকান পুড়ে ছাই হয় যায়। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আরও ২/৩টি দোকান।

প্রত্যক্ষদর্শী অনুযায়ী,গতকাল ১৫ ফেব্রুয়ারী রাত আনুমানিক ১.৩০ এর দিকে লাউকাঠী বাজার ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে একটি মনোহরি দোকানে আগুন লাগে। ঘন বসতি হওয়ার কারণে দ্রুত গতিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় লোকদের সাহায্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

প্রায় দেড়ঘন্টা চেষ্টার পর ফায়ার সার্ভিসের গাড়ী আসার আগেই আগুন সম্পূর্ন নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়। আগুন নিয়ন্ত্রনে আসার আগেই একটি মুদী, মনোহরি দোকান ও দুটি চায়ের দোকান পুড়ে শেষ হয়ে যায় এবং পাশের দুটি দোকান আংশিক পুড়ে যায়।

সম্পূর্ন পুড়ে যাওয়া তিনটি দোকানের মধ্যে মুদী দোকানের মালিক লাউকাঠী গ্রামের বাসিন্দা মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, তার দোকানে ১০লক্ষ টাকার মালামাল ছিলো,যা পুড়ে শেষ হয়ে গিয়েছে,তিনি আরো বলেন,আমার সব শেষ হয়ে গিয়েছে,স্ত্রী সন্তানের মুখে দুমুঠো খাবার তুলে দেওয়ার সামার্থ এখন আমার নেই। জামুরা গ্রামের বাসিন্দা মোঃ রাসেলের একটি চায়ের দোকানও সম্পূর্ন পুড়ে গিয়েছে, তিনি বিভিন্ন এনজিও থেকে ৫০/৬০হাজার টাকা লোন নিয়ে দোকান চালাচ্ছিলেন। অন্য একটি চায়ের দোকানের মালিক ওয়াপদা কলোনির বাসিন্দা মোঃ সেলিম সিকদার, তিনিও আত্মীয় স্বজনের কাছ থেকে এবং এনজিও থেকে লোন নিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছিলেন।তার দোকান পুড়ে যাওয়ায় কারনে তিনি চোখে অন্ধকার দেখছেন।

পুড়ে যাওয়া তিনটি সহ আংশিক ক্ষতি হওয়া তিনটি দোকানের বাড়ির মালিক সোহেল মাহমুদ বলেন, ধার দেনা করে প্রায় ১০/১২লক্ষ টাকা খরচ করে ঘড় নির্মান করে তা ভাড়া দিয়েছিলেন,ভাড়ার টাকা দিয়ে তিনি সংসার চালাতেন,তার ঘরটি পুড়ে যাওয়ার কারনে তিনিও সর্বশান্ত। সরকারি বেসরকারী বিভিন্ন সংস্থা ও বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ দোকানদাররা ও ঘরের মালিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *