মহানগর বার্তা

ইতিহাস সৃষ্টি কলকাতা মেট্রোর, যাত্রী নিয়ে নদীর তলা দিয়ে ছুটে গেল মেট্রো

নিউজ ডেস্ক: ইতিহাস রচনা করলো কলকাতা মেট্রো। প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে, ১৫ মার্চ ঠিক সকাল ৭ টায় প্রবল উচ্ছ্বাস ধ্বনি দিয়ে শুরু হল যাত্রী নিয়ে গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রো চলাচল।

দেশের প্রথম যাত্রী নিয়ে নদীর তলা দিয়ে ছুটে গেল মেট্রো। ঠিক ৭.০৩ এ মেট্রো পৌঁছে গেল মহাকরণ এবং ঠিক তার ২ মিনিটের মাথায় প্রবল উচ্ছ্বাস, আনন্দে ফেটে পড়লেন যাত্রীরা। মেট্রো তখন গঙ্গার নীচে। গঙ্গার জল স্তরের নিচে সুড়ঙ্গ কেটে তৈরি হয়েছে মেট্রোর পথ। যাত্রীদের কাছে “নদীর নিচে মেট্রো” বিষয়টি আরও স্পষ্ট করতে কয়েক সেকেন্ডের টানেলে কাঁচের বাইরে দু” দিকে নীল আলোক সজ্জা। যেন তাঁরা যাচ্ছেন একেবারে জলের মাঝখান দিয়েই। চিত্‍কার, উচ্ছ্বাস এমনকি উঠল জয় শ্রী রাম ধ্বনিও।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৬ মার্চ এই লাইনের উদ্বোধন করেন। ১৫ মার্চ প্রথমবার যাত্রী নিয়ে শুরু হল চলাচল। এদিন মেট্রো চলাচল শুরু আগে থেকেই স্টেশনের বাইরে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। কেউ এসেছেন রাত আড়াইটা, কেউ বা ভোর ৪টায়। কেউ সোদপুর থেকে এসেছেন, কেউ বনগাঁ থেকে। তাঁরা সাক্ষী থাকতে চেয়েছিলেন গঙ্গা দিয়ে সে মেট্রো ছুটে যাবে, তার প্রথম সওয়ারি হওয়ার।

সল্টলেকের রাজীব রায়, রাত ২.৩০ টা থেকে হাজির ছিলেন ধর্মতলায়। প্রথম টিকিট কাটলেন তিনি, মেয়েদের মধ্যে প্রথম টিকিট কাটলেন ভবানীপুরের উপাসনা ঘোষ। ট্রেন চলতে শুরু করার পর থেকেই মূহূর্মুহু উচ্ছাসে ফেটে পড়েন সকলেই। ধর্মতলা থেকে হাওড়া ময়দান, মোট ৪টি স্টেশন পেরোতে সময় লাগল ১০ মিনিট। সড়ক পথে যে পথ অতিক্রম করতে সময় লাগে অন্তত ৪০ থেকে ৪৫ মিনিট। সেই রাস্তা ১০ মিনিটে যাওয়ায় ভীষণ খুশি নিত্য যাত্রীরা। অনেকেই জানালেন, এবার তাঁরা সেই পথেই যাতায়াত করবেন বলে জানালেন।

কলকাতা মেট্রোর সিপিআরও কৌশিক মিত্র কার্যতই খুশি। দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান মুহূর্তে জানালেন, “চ্যালেঞ্জিং ছিল, কলকাতার মানুষের দীর্ঘদিনের চাহিদা পূরণ হল। কলকাতার মানুষ এবার শুধু রসগোল্লার জন্য গর্ব করবেন না, গঙ্গার নিচে দিয়ে চলা মেট্রো রেল নিয়েও গর্ব করবেন। খুব কম খরচে মানুষের জন্য সুগম যাতায়াত ব্যবস্থা শুরু হল। কলকাতা মেট্রো দেশবাসীর জন্য।” এদিন প্রথম মেট্রোয় সওয়ার ছিলেন ৫০০ এর বেশি যাত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *