মহানগর বার্তা

পৌরসভার বিরুদ্ধে টালা ঝিলপারে প্রতিবাদ মিছিল

নিউজ ডেস্ক: সালটা ছিল ২০১১, ১১ ই জানুয়ারি টালা অঞ্চলের বাসিন্দা আরতি সেনগুপ্ত প্রত্যেকদিনের মতো টালা ঝিলপারে গিয়েছিলেন প্রাতঃভ্রমণের জন্য। কিন্তু ভাগ্যের নিঠুর পরিহাসে সেদিন আর বাড়ি ফিরতে পারেননি।

সকালবেলা যখন অন্যান্য আর পাঁচজন প্রাতঃভ্রমণ করছেন টালা ঝিলপারে সেই সময় তাঁদের চোখের সামনে পুরসভার একটি গাড়ি সজরে এসে রীতিমত পিষে দেয় আরতী দেবীকে। হাসপাতাল নিয়ে যেতে যেতে সব শেষ হয় যায়।

এই ঘটনার পর কেটে গিয়েছে প্রায় ১৩ বছর।আরতি দেবীর মৃত্যুর পর প্রাতঃভ্রমণকারীরা ও আরতী দেবীর পরিবারের সদস্যরা পুরসভা তথা একাধিক দপ্তরে চিঠি দিয়ে অভিযোগ জানায় এই ঘটনার বিরুদ্ধে। টালা ঝিলপার্ক এর মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি পার্ক যেখানে বহু প্রাতঃভ্রমণকারীরা অনেক বয়স্ক ব্যক্তিরা বাচ্চারা শিশুরা পার্কে আসেন। সকাল বেলা এই সময়টিতে মূলত পুরসভার গাড়ি চলাচলে যাতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তবে সেই অভিযোগে কোন কর্ণপাত হয়নি। আজও চলছে পার্কের ভেতরে অবাধ পুরসভার গাড়ি যাতায়াত।

শুধু তাই নয় দশ বছর পর ওই গাড়িচালক গ্রেপ্তার হলেও পরবর্তীকালে তিনি জামিনে ছাড়া পান। প্রাতঃভ্রমণকারী এবং আরতি সেনগুপ্তের ছেলের দাবি অবিলম্বে পুরসভার এই পার্কে গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে হবে। মূলত এই সকল সুনির্দিষ্ট দাবি গুলি নিয়ে প্রাতঃভ্রমনকারী আরতী দেবীর পরিবারের সদস্যরা পার্কের ভেতরেই প্রতিকি বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে। দাবি পুরোন না ভবিষ্যতে তাদের আন্দোলন আরো সুদৃঢ় হবে এমনটাই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় প্রশাসনকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *