পলিটিক্সরাজ্য বার্তা

বর্ধিত হারে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পেল বাংলার মহিলারা, খুশিতে আত্মহারা

নিউজ ডেস্ক; বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিশ্রুতি মতো এপ্রিল মাসেই লক্ষ্মীর ভান্ডার এর বর্ধিত হারে টাকা পেল বাংলার মহিলরা। খুশিতে আত্মহারা সকলে। হুগলি জেলায় মহিলাদের দেখা গেল শঙ্খ বাজিয়ে, উলুধ্বনি দিয়ে, আবির মেখে মেতে উঠতে।

রাজ্যের সকল শ্রেণীর মহিলারা যাতে ‘হাত খরচের’ টাকা পান সেই জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্প চালু করেছে রাজ্য সরকার। ২০২৪ রাজ্য বাজেটে এবার এই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে বিরাট ঘোষণা করেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে ভাতা ৫০০ টাকা বাড়িয়ে ১০০০ টাকা এবং জনজাতি মহিলাদের জন্য ভাতা বাড়িয়ে ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা করা হয়। ১ এপ্রিল ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকার কারণে ২ এপ্রিল থেকেই বর্ধিত হারে সেই টাকা ঢুকতে শুরু করেছে।

এদিন বৈদ্যবাটি পৌরসভার প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের পাশাপাশি ২০ নম্বর ওয়ার্ডে পৌর সদস্য হরিপদ পাল, বৈদ্যবাটি শেওড়াফুলি শহর তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী পৌষালী ভট্টাচার্যও এলাকার মহিলাদের সঙ্গে এই শোভাযাত্রায় সামিল হন। হরিপদ পাল বলেন, মমতা এবং মোদি দুজনই ৫০০ টাকা বাড়িয়ে ১০০০ করেছেন, দিদি লক্ষী ভান্ডার ৫০০ থেকে বাড়িয়ে ১০০০ করেছেন এবং মোদি গ্যাসের দাম ৫০০ থেকে বাড়িয়ে ১০০০ করেছেন, যে জনদরদী তার পাশে থাকুন। বাংলার আপামর জনতার কাছে আমি এই আবেদন রাখলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *