খেলার বার্তামহানগর বার্তারাজ্য বার্তা

রবিবার ইডেনের ম্যাচের টিকিট নিয়ে কালোবাজারি, মুখ খুললেন সৌরভ গাঙ্গুলি

নিউজ ডেস্ক: ইডেনে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের টিকিট নিয়ে হাহাকার চলছে। টিকিট পাচ্ছে না সিএবির সদস্য থেকে জনসাধারণ। এই ইস্যুতে বাংলার ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ইডেনে রবিবার ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের টিকিট বন্টন নিয়ে তদন্ত অভিযানে নামল কলকাতা পুলিশ। তারা খতিয়ে দেখবে কীভাবে টিকিটের বন্টন হয়েছে এ ম্যাচের জন্য। তারা কথা বলতে চায় সিএবি কর্তা ও অনলাইন অ্যাপ বুক মাই শো-র আধিকারিকদের সঙ্গেও।

এই আবহে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কর্তাদেরই কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন সৌরভ গাঙ্গুলি। যাবতীয় দোষ বিসিসিআইয়ের ওপরই চাপান প্রাক্তন বোর্ড প্রধান। বৃহস্পতিবার বিকেলে সিএবিতে এসে এমনই দাবি সৌরভের। তিনি জানান, বিশ্বকাপের টিকিটের দায়িত্ব ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। এখানে সিএবির কিছু করার নেই। ঘুরিয়ে বোর্ড সচিব জয় শাহের দিকেই তীর মারলেন।

সৌরভ বলেন, “বিশ্বকাপের টিকিটের দায়িত্ব ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। সিএবির সদস্যরা টিকিট না পেলেও কিছু করার নেই। তাও তো সদস্যদের ৩০০০ টিকিট দেওয়া হয়েছে।” চারিদিকে টিকিটের কালোবাজারি হচ্ছে। কিন্তু এই বিষয়ে সিএবির কিছু করার নেই বলে মনে করেন তিনি। এই প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, “সিএবি কি করে টিকিটের কালোবাজারি আটকাবে! এটা সম্ভব নয়। মহমেডান মাঠে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা তো সম্ভব নয়। এই দায়িত্ব পুলিশের।”

কলকাতার নগরপাল জানান, টিকিটের কালোবাজারি নিয়ে তদন্ত চলছে। বেশ কিছু টিকিট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। বিনীত গোয়েল বলেন, “টিকিটের কালোবাজারি নিয়ে তদন্ত চলছে। এখনও পর্যন্ত ৫৫টা টিকিট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সাতজন গ্রেফতার হয়েছে। সিএবি তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগের জবাব দিয়েছে। কিন্তু আমাদের আরও খুঁটিনাটি জানতে হবে। তাই আরও বিশদে উত্তর দিতে বলা হয়েছে। টিকিট বুকিংয়ের প্রক্রিয়া আমাদের জানতে হবে। সিএবি এবং টিকিট বুকিং সংস্থাকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। তদন্তকারী অফিসারের সঙ্গে দেখা করতে বলা হয়েছে।”

রবিবার ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের দায়িত্বে থাকবে ৪০০০ পুলিশকর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *