জাতীয় বার্তামহানগর বার্তারাজ্য বার্তা

২৬ হাজার স্কুল শিক্ষকের চাকরি বাতিলের নির্দেশে স্থগিতাদেশ সুপ্রিম কোর্টের

নিউজ ডেস্ক: কিছুটা হলেও স্বস্তির মুখে ২৬ হাজার স্কুল শিক্ষক। ২০১৬ সালের প্যানেলে যে সকল ২৬ হাজার স্কুল শিক্ষক চাকরি পেয়েছিলেন সেই চাকরি বাতিলের নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট।

২৬ হাজার স্কুল শিক্ষকের চাকরি বাতিলের যে নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্ট গত ২২ এপ্রিল দিয়েছিল, তার উপরে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট। যার অর্থ, আপাতত প্রায় ২৬ হাজার শিক্ষকের চাকরি বহাল থাকছে। তবে বেশ কয়েকটি শর্ত দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, যাঁদের চাকরি বাতিল হয়েছিল সেই শিক্ষকদের মুচলেকা দিয়ে জানাতে হবে ভবিষ্যতে অযোগ্য বলে প্রমাণিত হলে তাঁদের হাইকোর্টের নির্দেশ মোতাবেক ফেরত দিতে হবে। এর পাশাপাশি, অযোগ্য বলে চিহ্নিত চাকরি প্রাপকদেরও আপাতত ১২ শতাংশ সুদ সহ বেতনের টাকা ফেরত দিতে হবে না। আগামী ১৬ জুলাই মামলার পরবর্তী শুনানি। ওই দিনই এই মামলার চূড়ান্ত রায়দান করবে শীর্ষ আদালত।

সুপ্রিম কোর্ট এ দিন নির্দেশ দিতে গিয়ে জানিয়েছে, এসএসসি যদি যোগ্য অযোগ্যদের বিভাজন করতে পারে, তাহলে গোটা প্যানেল বাতিল ন্যায্য নয়। পাশাপাশি, প্রায় ২৬ হাজার শিক্ষকের চাকরি বাতিল হলে তার অভিঘাত অনস্বীকার্য বলেও স্বীকার করেছে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

নির্দেশ দেওয়ার আগে এ দিন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় মন্তব্য করেন, ‘আমাদের রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি যাই হোক না কেন , এখানে আমরা সবাই বিচার ব্যবস্থার অঙ্গ। ফলে আমাদের সেই শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে। শান্তিপূর্ণ ভাবে শুনানি সম্ভব হচ্ছে না।’

এ দিন শুনানি পর্বে বার বারই সুপ্রিম কোর্টের প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্য সরকার এবং এসএসসি-কে। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ ক্ষোভের সঙ্গে মন্তব্য করে, ‘এমনিতেই সরকারি চাকরি খুব কম। তার উপরে সরকারি নিয়োগ প্রক্রিয়াতেও দুর্নীতি হলে মানুষের ভরসা উঠে যাবে। প্রচুর গরিব মানুষ সরকারি চাকরির দিকে তাকিয়ে থাকেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *