জাতীয় বার্তামহানগর বার্তারাজ্য বার্তালোকসভা নির্বাচন

লোকসভা নির্বাচনে তমলুক কেন্দ্রে তিন হেভিওয়েট প্রার্থীর যুদ্ধ

নিউজ ডেস্ক: এবারের লোকসভা নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল পাখির চোখের নজর রেখেছে তমলুক কেন্দ্রকে ঘিরে।

বাম দলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করার পরেই রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপি প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে যেমন একের পর এক চমক দিয়েছিল। বামেরাও কিন্তু তাঁদের সমান টক্কর দিয়েছিল। একেবারে তরুণ তুর্কিদের গুরুত্বপূর্ণ প্রার্থী করে চমক দিয়েছে বামেরাও। সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে সৃজন, দীপ্সিতা সহ একঝাঁক তরুণ তুর্কি। এবং তাঁদের একাধিক ঝুঁকি পূর্ণ হাইভোল্টেজ আসনে প্রার্থী করা হয়েছে।

তবে সব চাইতে বড় চমক তমলুক কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে আইনজীবী তরুণ তুর্কি সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তৃণমূলও এই কেন্দ্রে বাজি রেখেছে তাঁদের জনপ্রিয় যুব নেতা দেবাংশুকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য দেবাংশু এবং সায়ন দুজনেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয় এবং জনপ্রিয়। এদিকে আবার এই কেন্দ্রে বিজেপির বাজি বিচারপতি অভিজিত্‍ গঙ্গোপাধ্যায়। নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে একের পর এক রায় দিয়ে যিনি শাসক দলের ঘুম ছুটিয়ে দিয়েছিলেন।

অন্যদিকে বাম প্রার্থী সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবার আরেকটি পরিচয় রয়েছে তিনি পেশায় আইনজীবী। কাজেই সেদিক থেকে দেখতে গেলে আবার বিচারপতি বনাম আইনজীবী লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে তমলুক। যদিও সায়ন বন্দোপাধ্যায়ের বক্তব্য, আদালতে বিচারপতির সঙ্গে সওয়াল জবাব করা সহজ কিন্তু এটা ভোটের ময়দান এখানে প্রাক্তন বিচারপতি তাঁর প্রতিপক্ষ।

সওয়াল জবাব নয় এখানে রায়দান করবে খোদ জনতা। তাই লড়াইয়ের ময়দানটা একেবারেই আলাদা। তমলুক লোকসভা কেন্দ্রের প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন অভিজিত্‍ গঙ্গোপাধ্যায়। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দেবাংশুও মাটি কামড়ে পড়ে রয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয়তার জেরে তাঁরও যুব সমাজে বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। দেরি করে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ায় সায়নে একটু পিছিয়ে গিয়েছেন প্রচারে। তবে ময়দান ধরতে সময় লাগবে না। কারণ একটা সময়ে তমলুক বামেদের ঘাঁটি বলেই পরিচিত ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *