পলিটিক্সরাজ্য বার্তা

হোস্টেল নির্মাণকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, উত্তেজনা কুশমন্ডিতে

নিউজ ডেস্ক: গত ২ নভেম্বর উদ্বোধন হয়েছে মাইনোরিটি আবাসিক হোস্টেলের। যার বরাদ্দকৃত অর্থ এক কোটি চার লক্ষ টাকা। স্কুলের মাইনোরিটি আবাসিক হোস্টেল নির্মাণকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি ব্লকের ঢাকঢোল উচ্চ বিদ্যালয়ের আবাসিক হোস্টেল নির্মাণকে কেন্দ্র করে।

জানা যায়,হোস্টেল নির্মাণের পণ্য সামগ্রী দেখভালের দায়িত্ব তৃণমূলের কোন গোষ্ঠী পাবে, এই নিয়ে চলে ব্যাপক হাতাহাতি। এই উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে আহত হয় দুই পক্ষের কমবেশি পাঁচজন।আহতরা গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। একে অপরের বিরুদ্ধে কুশমন্ডি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এই প্রসঙ্গে কুশমন্ডি ব্লকের দুই নং করঞ্জি অঞ্চলের তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি কামাল আহমেদ বলেন, কংগ্রেসের লোকজন আমাদের উপর এসে চড়াও হয়, আমাদেরকে ব্যাপক হারে মারে, আমার ছেলে এবং আমি প্রচন্ড পরিমাণে আহত হই।আমরা কুশমন্ডি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।যদিও তাদেরকে গুরুতর অবস্থায় কুশমন্ডি হাসপাতালে নিয়ে আসলে অবস্থার অবনতি হলে গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান সাহিদা আক্তার নিলু বলেন, অঞ্চল সভাপতি কামাল আহমেদের এইসব অভিযোগ ভিত্তিহীন। তিনি বলেন আমি দশ বছরের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীক চিহ্ন নিয়ে প্রধান হয়েছিলাম,আমরা এখনো তৃণমূল কংগ্রেসের সৈনিক। তিনি আরোও অভিযোগ করেন, তৃণমূলের ওই অঞ্চল সভাপতি কামাল আহমেদ ও তার দলবল আমার স্বামী ও আমার দেবরকে প্রচন্ড পরিমাণে মারধর করে এবং আমাদেরকে একটা ভিত্তিহীন রাজনৈতিক তকমা দেয়,তৃণমূল দলকে মেলাইন করার জন্য। আমরা চাইছি আবাসিক হোস্টেলটি ভালোভাবে নির্মাণ হোক। এর জন্য প্রশাসন দ্রুত ব্যবস্থা নিক। যদিও একে অপরের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

যদিও কুশমন্ডি বিধানসভার বিধায়িকা রেখা রায় গোষ্ঠিকন্দলের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন।

রিপোর্টার: জয়দীপ মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *